Skip to content

পল্লী বিদুৎএর নতুন মিটার অনলাইনে আবেদন করার পদ্ধতি বা নিয়ম 2023

  • by

বিসমিল্লাহির রহমানির রাহিম

আসসালামু আলাইকুম আজকে আমরা এমন একটি গুরুত্বপূর্ণ পোষ্ট নিয়ে হাজির হয়েছি যা আমাদের সকলের প্রয়োজন বিদুৎযামানুষের জীবনের নিত্য সঙ্গী. সুতরাং বিদ্যুৎ ছাড়া একদিনও চলা সম্ভব নয় এজন্য বিদ্যুতের সাথে মানুষের সম্পর্ক নিবিরভাবে জড়িত. অনেকে এখন পর্যন্ত বিদ্যুতের সংযোগ পাননি কিন্তু তারা বিদ্যুতের সংযোগ নিতে চান. কিন্তু জানেন না কিভাবে বিদ্যুতের মিটার এর সংযোগ অনলাইনে করতে হয় বা অনলাইনে কিভাবে মিটার পাওয়ার আবেদন করতে হয আর কিভাবে অনলাইনে আবেদন করলে মিটার এর সংযোগ করা যাবে

সুতারাং আজকে আমরা আলোচনা করব এই গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টি নিয়ে যা আমরা এখনো কেউ কেউ জানি না যে, পল্লী বিদুৎ এর নতুন মিটার অনলাইনে আবেদন করা যায় । হ্যাঁ ভাই পল্লীবিদুৎ এর নতুন মিটার আপনি অনলাইনে সহজে আবেদন করতে পারবেন । তাই আমরা এই পুরো নিবন্ধন জুরে এই গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টি আলোচনা করব আর কি ভাবে আপনি সহজে আবেদন করতে পারবেন তাই আমরা নিচে সুন্দর ভাবে তুলে ধরেছি যাতে করে আপনারা সহজে বুঝতে পারেন ।

পল্লী বিদৎ এর কয়েকটি ধাঁপ

প্রথমে অফিস থেকে অফিসার আসবে তারপর আপনার সংযোগের জন্য পাশের খুঁটি থেকে যদি আপনার সংযোগটি  ৫০ মিটার এর মধ্যে হয় । তাহলে আপনার লাইনটি অফিস থেকে সহজে পেয়ে যাবেন আর যদি দূরে হয় তাহলে আপনাকে খুঁটির জন্য আবেদন করতে হবে । তাই নতুন সংযোগের কয়েকটি ধাঁপ বা নিয়ম আছে। তা নিচে আলোচনা করা হলো–

অনলাইনে নতুন মিটার আবেদন করার পদ্ধতি বা নিয়ম

প্রথমে একটা কথা বলবো আপনি যদি ইন্টারনেট সর্ম্পকে ভালো বুঝেন তাহলে আপনি আপনার নতুন মিটারের আবেদন  নিজেই করতে পারবেন আপনাকে প্রথমে ব্রাউজারে ক্লিক করতে হবে এরপরের ধাঁপগুলো

  • আপনাকে ব্রাউজারের মাধ্যমে পল্লী বিদুৎ এর ওয়েবসাইটে ঢুকতে হবে এরপর আপনি একটি ইন্টারফেস দেখতে পাবেন
  • এবার আপনার কম্পিউটার এর উপরের দিকে একটা আবেদন লেখা দেখতে পাবেন এবং সেই আবেদন লেখাটিতে ক্লিক করুন
  • আপনার ক্লিক করার পর একটি ফরম চলে আসবে সেখানে আপনার এলাকার বিদ্যুৎ অফিসের নাম, জোনাল অফিস, সংযোগ টোরিফ ইত্যাদি এসব তথ্য পূরণ করতে হবে
  • তাছাড়া আবেদনকারীর তথ্য যেমন: আবেদনকারীর নাম, পিতার নাম, মাতার নাম, এনআইডি নম্বর মোবাইল নম্বর ও আপনার ঠিকানা সহ আর যা যা তথ্য চায় তা সম্পূর্ণ দিয়ে সমস্ত তথ্য ভালো করে পূরণ করুন।

অনলাইনে আবেদন করার জন্য কাগজ পত্রাদি

অনলাইনে আবেদন করার জন্য কতগুলো কাগজপত্রের প্রয়োজন হয় তাই আমরা নিচে পর্যায়ক্রমে তুলে ধরেছি আপনার সুবির্ধাতে যাতে করে আপনারা সহজে আবেদন করতে পারেন। নিচে বিষয়গুলো  বিস্তারিত আলোচনা করা হলো–

  • ১) আবেদন করার সময় ছবি, জাতীয় পরিচয় পত্র,ট্রেড লাইসেন্স,সংযোগস্থলের দলিলের/খারিজের স্ক্যান কপি সংযুক্ত করতে হবে।
  • ২) আবেদন করার সময় সকল তথ্য সঠিক দিতে হবে।ভুল তথ্য দিলে পরবর্তীতে সংযোগ পেতে বিলম্ব হতে পারে।
  • ৩) মোট লোড ৫০ কিলোওয়াট এর নিচে হলে ট্রান্সফর্মার খরচ অফিস বহন করবে।
  • ৪) সার্ভে করার পর প্রয়োজনীয় অর্থ (লাইননির্মান ফি,মেম্বারশীপ ফি ও নিরাপত্তা জামানত) জমাদানসহ সকল নির্দেশনা এসএমএস এর মাধ্যমে জানানো হবে।
  • ৫) বহুতল ভবনের (১০ তলার অধিক) ক্ষেত্রে অগ্নি নির্বাপক সার্টিফিকেট লাগবে।
  • ৬) আবেদন ফরমের লাল(*) চিহ্নিত ক্ষেত্রগুলো অবশ্যই পূরন করতে হবে।
  • ৭) আবেদন পত্রে গ্রাহকের নিজস্ব মোবাইল নম্বর প্রদান করুন।
  • ৮) আবেদনের পর প্রাপ্ত ট্র্যাকিং আইডি এবং পিন নম্বর অবশ্যই সংরক্ষণ করতে হবে।
  • ৯) সংযোগের অর্থ ডাচবাংলা ব্যাংকের মোবাইল ব্যাংকিং (রকেট) এর মাধ্যমে পরিশোধ করা যাবে।
  • ১০) ডাচবাংলা ব্যাংকের মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে ফি পরিশোধ করা যাবে।
শেষ কথা : আ্পনারা এই নিয়ম অনুসারে নতুন মিটার বা সংযোগের জন্য আবেদন করতে পারবেন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *